আম খেলে ভালো ঘুম হবার পেছনের কারণ কী ?

আম কে বলা হয়ে থাকে ফলের রাজা। আম পছন্দ করে না এমন লোক খুজে পাওয়া ই কঠিন। আমের পরিপক্ক, রসালো গঠন ও অতুলনীয় স্বাদ এর জন্য এটি সারা বিশ্বে সমাদৃত। অনেকেই হয়তো খেয়াল করেছেন গ্রীষ্মের উত্তপ্ততার মৌসুমে একটা পাকা আম অথবা আমের জুস খেলে ঘুম আসে। কখনো কি এর পিছনে কি কারণ রয়েছে তা খেয়াল করেছেন কী!

চলুন জেনে নেই পাকা আম খেলে ঘুম আসে কেন?

পাকা আম খেলে ঘুম আসে কারন এতে উপস্থিত ট্রিপটোফ্যান নামক রাসায়নিক উপাদানটি নিদ্রাকোর্ষী হিসেবে কাজ করে থাকে। আমে উপস্থিত ইনসুলিন ট্রিপটোফ্যান কে মস্তিষ্কে চালনা করে। ফলশ্রুতিতে এটি থেকে মস্তিষ্কে নিউরোট্রান্সমিটার সিনথেসিস এর মাধ্যমে সেরোটোনিন নিঃসৃত হয়ে থাকে। এই সেরোটোনিনই মূলত মস্তিষ্ককে শীতল ও ঠান্ডা করে। ফলে ধীরে ধীরে শরীর নিস্তেজ ও স্থির হয়ে পড়ে এবং ঘুম আসে।

ট্রিপটোফ্যান আসলে কি জানেন ?

১৯০০ এর পরের দিকে হুকিংস ও কোল প্রোটিন থেকে কেসিন আলাদা করতে গিয়ে ট্রিপটোফ্যান আবিষ্কার করে। যদিও তখন এর আণবিক গঠন আবিষ্কার করতে পারেনি। অবশ্য তার কিছু বছর পর এটি আবিষ্কৃত হয়। যা খেলে ঘুম হওয়ার পিছনের কারন। পাকা আম এ উপস্থিত ট্রিপটোফ্যান হচ্ছে আসলে শরীরের জন্য অতি প্রয়োজনীয় অত্যাবশ্যকীয় অ্যামাইনো এসিড।

শরীরের জন্য অত্যাবশ্যকীয় আটটি অ্যামাইনো এসিড রয়েছে। সেগুলো হচ্ছে লাইসিন, আইসোলিউসিন, লিউসিন, মেথিমাইন, ফিনাইলএলানাইন, থিওনাইন, ট্রিপটোফ্যান ভ্যালিন

সাধারণত এ ট্রিপটোফ্যান উদ্ভিজ্জ ও প্রাণিজ প্রোটিন পাওয়া যায়। একে আবশ্যকীয় বলা হয় কেননা আমাদের শরীর নিজে নিজে এ উপাদনটি তৈরি করতে পারে না। বিভিন্ন খাদ্য থেকে আমাদেরকে এটি গ্রহণ করতে হয়।

ট্রিপটোফ্যান সেরোটোনিন উৎপাদনে, মুড স্টেবিলাইজার, মেলাটোনিন, নায়াসিন বা ভিটামিন B-3, আদর্শ ঘুম নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। এটি রক্ত সংবহনতন্ত্রও সংকীর্ণ করে।

পাকা আম শরীরে ইনসুলিন ট্রিপটোফ্যান সংযোগ করে তাই ডায়বেটিস, উচ্চ রক্তচাপের রোগী, গ‍্যাষ্টিক ও আলসারের রোগীদের পাকা আম কম খাওয়া উচিত।স্বাস্থ‍্য সচেতন ও নিরোগ থাকতে স্বাস্থ‍্য তথ‍্য জেনে ও তা মেনে চলুন। সুস্থ ও সুন্দর জীবন যাপন করুন।

পুষ্টিগুণে ভরপুর কাঁঠালের বিচি গুণাগুণের তথ‍্য জেনে নেই।

নতুন নতুন মোবাইল এর আপডেট পেতে ভিজিট করুন

One thought on “আম খেলে ভালো ঘুম হবার পেছনের কারণ কী ?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *