ভ্যাকসিন নিয়ে অনেক প্রশ্নের উত্তর স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

করোনা প্রতিরোধে ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ যে কেন্দ্র থেকে নেওয়া হয়েছিল, সেখান থেকেই দ্বিতীয় ডোজ নিতে হবে। এ ক্ষেত্রে দ্বিতীয় ডোজের জন্য এসএমএস পাওয়ার পর সেন্টারে গিয়ে ভ্যাকসিন নিতে হবে।

লকডাউন, রোজা, দ্বিতীয় ডোজ এবং করোনামুক্ত হওয়ার কত দিনের মাথায় ভ্যাকসিন নেওয়া যাবে—এ ধরনের নানা প্রশ্নের উত্তর দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। আজ বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে এসব জানানো হয়।

ভ্যাকসিন

লকডাউন চলাকালে দ্বিতীয় ডোজ পাওয়া নিশ্চিতে কী করতে হবে, তা জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা। তিনি বলেন, সবাই টিকা পাবেন। কোনো দ্বিধা নেই। লকডাউনে টিকা কার্যক্রম চলবে। ভ্যাকসিন কার্ড সঙ্গে থাকলে ভ্যাকসিন নিতে যাওয়া যাবে।

লকডাউনে যাঁরা টিকাকেন্দ্র থেকে দূরে অন্য এলাকায় থাকছেন, তাঁদের দ্বিতীয় ডোজ পাওয়া বিষয়ে মীরজাদী সেব্রিনা বলেন, ৮ সপ্তাহ থেকে ১২ সপ্তাহের মধ্যে দ্বিতীয় ডোজের টিকা নিতে হবে। ৮ সপ্তাহ যাঁদের হয়েছে, তাঁদের শঙ্কিত বা উদ্বিগ্ন হওয়ার কোনো কারণ নেই। ১২ সপ্তাহের মধ্যে নিলেই হবে। যদি লকডাউন দীর্ঘায়িত হয় তখন টিকা কীভাবে দেওয়া হবে, সে ব্যাপারে কর্তৃপক্ষ বিবেচনা করবে।

রোজায় টিকা নেওয়া বিষয়ে মীরজাদী বলেন, রোজায় টিকা নেওয়া যাবে কি না, এ বিষয়ে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের কাছে পরামর্শ চাওয়া হয়েছিল। তারা জানিয়েছে, রোজার মধ্যে টিকা নিতে কোনো বাধা নেই। সৌদি আরবসহ বিভিন্ন মুসলিম দেশেও টিকা কার্যক্রম চলছে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে কিছু অজানা তথ‍্য জেনে নেই।

করোনামুক্ত হলে কত দিন পরে টিকা নেওয়া যাবে এ বিষয়ে মীরজাদী জানান, করোনা নেগেটিভ হওয়ার এক মাস পর টিকা নেওয়া যাবে। প্রথম ও দ্বিতীয়—দুই ডোজের ক্ষেত্রেই এই সময় প্রযোজ্য।

দেশীয়ভাবে টিকা তৈরির কথা ভাবছে সরকার

সবার টিকা পাওয়া নিশ্চিত করতে সরকার কাজ করছে বলে জানান মীরজাদী সেব্রিনা। তিনি বলেন, কোভ্যাক্সের সঙ্গে ২০ শতাংশ মানুষের জন্য টিকা পাওয়ার একটি চুক্তি রয়েছে। যেকোনো সময়ে তা আসবে। রাজস্ব খাত থেকে যে তিন কোটি ডোজ কেনা হয়েছে, তা পর্যায়ক্রমে আসছে। এ ছাড়া বিশ্বব্যাংকের একটি প্রকল্পে ৫০০ মিলিয়ন ডলার রাখা হয়েছে টিকা কার্যক্রমের জন্য। এডিবির সঙ্গেও ৯৪০ মিলিয়ন ডলারের আরেকটি কাজ হচ্ছে। সরকার শুধু অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার ওপর নির্ভর না করে অন্যান্য দেশ যারা টিকা বানাচ্ছে, সেখান থেকে আনা যায় কি না, সেই চেষ্টাও করছে।

নতুন নতুন মোবাইল এর আপডেট পেতে ভিজিট করুন

One thought on “ভ্যাকসিন নিয়ে অনেক প্রশ্নের উত্তর স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *